Fake news শেয়ার করায় মহিলা গ্রেপ্তার কলকাতা

Fake news on corona করোনা ভাইরাসের ভুয়ো খবর ফেসবুকে পোস্ট করায়

গ্রেপ্তার করা হল বেলঘাটার এক মহিলা বাসিন্দাকে।

Fake news on corona

চন্দ্রিমা ভৌমিক নামের ঐ মহিলা বেলাঘাটার বাসিন্দা। বয়স 29 বছর। তিনি একটু ভুয়ো খবর ফেসবুকে পোস্ট করেন, তিনি পোস্টের মাধ্যমে জানিয়ে ছিলেন বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের একজন ডাক্তার নাকি করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা করতে গিয়ে নিজেই আক্রান্ত হয়েছে। যেটা ভুয়ো খবর বলে প্রমানিত।

আরো খবর পড়ুন কোন Blood Group করোনা ভাইরাস বেশী সংক্রামক হয় কি বলছেন বিজ্ঞানীরা জেনে নিন

প্রশাসন থেকে বারে বারে বলা হয়েছে যে, কেউ করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত কোন ভুয়ো খবর কোনো মাধ্যমেই ছড়াবেন না। এতে আতঙ্ক বাড়বে।

মহিলার এই খবরে যথেষ্ট ভাবে আতঙ্কিত হতে পারে সমাজ।

একদিকে চলছে লকডাউন। সকলেই লকডাউন প্রক্রিয়াকে মেনে চলছে। এমন অবস্থায় ঐ মহিলার ফেসবুকে ভুয়ো খবর পোস্ট করায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Financial Tips on Astrology অর্থলাভের চমৎকারী টোটকা

প্রসাশনের পক্ষ থেকে বারবার জানানো হচ্ছে কেউ ভুয়ে খবর ছড়লে তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।

অন্যদিকে কাশীপুর থানার নাকের ডগায় একটি গুদামে বেআইনি ভাবে বস্তা বস্তা চাল মজুত করছিলেন দুই ব্যবসায়ী সন্তোষ আগরওয়াল ও আমির আনসারি। যার বাজার মূল্য 2 লক্ষ 78 হাজার টাকা।

করোনা ভাইরাসের মোকাবিলায় দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। ছাড় দেওয়া হয়েছে দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় সামগ্রীর উপর। রেশন, বাজার, ঔষধের দোকান ইত্যাদি।

খুচরা বাজারে যাতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী সঠিক ভাবে সরাবরাহ করা হয় সেদিকে সর্বদা লক্ষ রাখছেন মাননীয়া মূখ্যমন্ত্রী। পুলিশ প্রশাসনকে ও ঠিক সেই ভাবে নজর দিতে বলেছেন তিনি। আর এরই মধ্যে কিছু মানুষ কালোবাজারীর সুযোগ নিতে মজুত করছে বস্তা বস্তা চাল।

এদিকে আমরা করোনা ভাইরাসে মোকাবিলায় তূতীয় পর্যায় এসে পৌছেছি। লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়ে চলেছে আক্রান্তদের সংখ্যা। কেন্দ্র ও রাজ্য বারবার বার্তা দিচ্ছেন সর্তক থাকার।

আমাদের সকলকে সর্তক থাকতেই হবে। আমাদের সচেতনতা ও সর্তকতাই একমাত্র হাতিয়ার। করোনা মোকাবিলায় সকলে অযথা আতঙ্কিত হবেন না। আতঙ্ক ছড়াবেন না।

সকলে সর্তক থাকুন। করোনা মোকাবিলায় আমাদের সচেতনা ও সর্তকতাই এখন প্রধান হাতিয়ার। লকডাউন প্রক্রিয়া মেনে চলুন।

সকলে সুস্থ থাকুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »