ডায়াবেটিসের লক্ষণ কি কি জেনে নিন সুস্থ থাকুন

ডায়াবেটিসের লক্ষণ কি কি। বিভিন্ন কারণে ডায়াবেটিস হয়ে থাকে। আসুন জেনে নি এই প্রবন্ধটির মাধ্যমে।

  1.  জল খাওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়।
  2. বারবার মূত্র ত্যাগ করতে হয়।
  3. বিশেষ করে রাতের বেলায় মূত্র ত্যাগ করার হার বেড়ে যায় বারবার।
  4. অতিরিক্ত খিদে পায়।
  5. শরীরের ওজন কমতে থাক।
  6. অল্প পরিশ্রমে শরীরে ক্লান্তি আসতে থাকে।
  7. বিভিন্ন সংক্রামণে শরীর আক্রান্ত হতে থাকে।
  8. মুখের সংক্রমণ বেশি হয়।
  9. শরীরের যে কোন ক্ষত সারতে সময় লাগে।

প্রধানত দুটি পরীক্ষার দ্বারা জানা যেতে পারে, আপনার শরিরে ডায়াবেটিস আছে কি না ?

বাড়িতে বসে কাজ করতে চান। এই লিঙ্কটি ওপেন করুন 

  1. ফাস্টিং সুগার ঃ আধ ঘন্টা খালি পেটে থেকে রক্ত পরীক্ষা করিয়ে যদি দেখা যায়, প্রতি ডেসিলিটার রক্তে সুগারের মাত্রা 126 মিলিগ্রাম বা তার বেশি থাকলে  মনে করা হয়, শরীরে ডায়াবেটিস আছে।
  2. পোস্ট ফাস্টিশ সুগার ঃ 75 গ্রাম গ্লুকোজ খাওয়ার পরে দই ঘন্টা অপেক্ষা করে, তার পরে রক্ত পরীক্ষা করলে যদি দেখা যায়, প্রতি ডেসিলিটার রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা 200 মিলিগ্রামের উপরে থাকলে ঐ ব্যক্তির ডায়াবেটিস আছে।

এছাড়া চিকিৎসা শাস্ত্র অনুযায়ী আরো বিশেষ কিছু পরীক্ষা নিরীক্ষা আছে, সেগুলিও যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।

ডায়াবেটিস রোগে কাদের সংক্রামন হওয়ার সম্ভাবনা থাকতে পারে সে গুলি নীচে উল্লেখ করা হল।

  1. ওজন বেড়ে গেলে অথবা শরীরে মেদের মাত্রা বেশি থাকলে। বিশেষত পেটের মেদ বা ভুড়ি হয়ে গেলে ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্স বেশী হয়।
  2. মাত্রায় অতিরিক্ত খাদ্য গ্রহণের ফলেও এই রোগ হতে পারে।
  3. নিয়মিত শরীর চর্চা করলে শরীরে শর্করা বিপাকে সাহায্য করে। যারা একবারেই শরীর চর্চা করেন না তাদের ক্ষেত্রে ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
  4. প্রবল দুশ্চিন্তা ডায়াবেটিস রোগের একটি প্রধান কারন। এতে শরীরে সুগারের মাত্রা বেড়ে যায়।

মনে রাখবেন, এই রোগ থেকে শরীরের নানা সমস্যা বড় আকার নিতে পারে। যেমন, শরীরের অন্যান্য অঙ্গ হার্টের অসুখ, কিডনির অসুখ, স্ট্রোক, স্নায়ু জনিত রোগ ইত্যাদি হতে পারে।

তাই নিয়মিত শরির চর্চা, পর্যান্ত পরিমান সঠিক আহার, দুচিন্তা মুক্ত মন ডায়াবেটিস রোগ থেকে যথাসাধ্য দূরে রাখতে পারে আপনাকে। আর শরীরের ওজন কে নিয়ন্ত্রন করুন। নিজেকে সুস্থ রাখুন। ভালো থাকুন।

Read Astrology Magazine

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »