প্রসঙ্গ পেঁচো মাতাল লকডাউনে ভিন্ন স্বাদ

সারাদিন করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন আপডেট আর লকডাউনের খবরের বাইরে একটি অন্য প্রসঙ্গ পেঁচো মাতাল

মদ্য পানকারীরা যখন মদ্য পান করতে করতে বেসামাল হয়ে পরে তখনো তাদের নামের আগে একটি বিশেষণ যুক্ত হয় “মাতাল”।  কিন্তু পেঁচো মাতাল কেন ?

তবে পেঁচো মাতাল এই শব্দের বিশেষ প্রয়োগ বেশি মাত্রায় পাওয়া যায় উত্তর কলকাতার পাড়া গুলিতে। পাড়ার কোনো

মদ্যপানকারীর স্বভাবের উপর ভিত্তি করে তাকে একটি বিশেষ অভিবাধন করা হয়ে থাকে যাকে বলা হয় পেঁচো মাতাল।

আরো পড়ুন Locks Down update শহরে উদ্ধার 343 বস্তা চাল গ্রেপ্তার ব্যবসায়ী

অর্থাৎ তার নামের আগে যুক্ত হয় পেঁচো-মাতাল শব্দ দুটি।

প্রসঙ্গ পেঁচো শব্দটি নিয়ে

যিনি মদ্যপানকরে তাকে তো মাতাল বলা হয় থাকে। তবে পেঁচো শব্দটি কেন যুক্ত হয় ?

এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত। সকলের সামনে আমার অভিমতটি তুলে ধরলাম। প্রধানত পেঁচো এই শব্দটি পাচু গোপাল সম্বন্ধীয়। কিন্তু মাতাল শব্দের আগে বসে একটি নতুন অর্থ প্রকাশ করেছে।

প্রসঙ্গ পেঁচো মাতাল

পেঁচো এই শব্দটি মাতাল শব্দের আগে বসে এখানে কোনো নির্দিষ্ট মদ্যপানকারী ব্যক্তির মাতলামো বা মদের প্রতি তার প্রবল চাহিদা কতখানি তা বোঝাতে হয়তো ব্যবহার করা হয়ে থাকে। বা তার মদ প্রেমের অভিব্যক্তিকেই তুলে ধরার জন্য এই পেঁচো শব্দের প্রয়োগ ঘেটেছে।

অতএব শুধু মাতাল থেকে পেঁচো মাতাল শব্দটি চলতি বাংলা ভাষায় একটি উন্নতমানে বিশেষণ রূপে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। যা সকল মদ্যপানকারীরা প্রসংশা রূপে আনন্দের সহিত মেনে নেন।

তারা এই উপাধি লাভের জন্য বহু মদ্যপান আসরে নিজের মদ্য মানের ক্ষমতা দেখাতেও দিধা বোধ করেন না। বর্তমানে বহু মদ্যপানকারী ব্যক্তি নিজেদের সেই সুনাম বজায় রাখতে হয়তো এই লকডাউনে নিজেদের চাহিদার জোগান দেওয়ার জন্য বহু আগেই নিজেদের সাধ্য মত তা মজুত করতে সক্ষম হয়েছেন বলা আশা করা যায়।

তাদের অসীম দয়ায় মদ ইন্ড্রাস্টির সাথে যুক্ত বহুমানুষের পেটের ভাত জোগান পায়। যেমন যে সকল মদ বিক্রিতের কর্মচারী সহ বিভিন্ন মদ্যপান কেন্দ্রের কর্মচারী সহ যারা মদ্যপানের জন্য সাথে বিভিন্ন প্রয়োজনীয় চাট ( এই অর্থে খাবার ) সরবরাহ করে থাকেন তাদের পরিবার এদের দ্বারা চলে।

মদ্যপানকারীরা অজান্তেই নিজেদের শরীরের খেয়াল না করে বহু পরিবারের অন্ন সংস্থানের একটি বিশেষ মাধ্যম রূপে নিজেদের গড়ে তোলে একজন সচেতন সমাজ বন্ধু রূপে।

পেঁচো মাতাল শব্দের উপমা তাদের সেই চাহিদা বাড়াতে সাহায্য করে। তারা গর্বিত বোধ করেন।

অধিক মদ্যপানের ফলে নিজের শারীরিক ক্ষতি ও সংসারের অবনতির কথাও গাহ্য করেন না।

আপনাদের কি ব্যক্তব জানাবেন অবশ্যই। দয়া করে লেখাটি কপি পেস্ট করে নিজের বলে চালাবেন না। ভালো লাগলে শেয়ার করুন। – সম্পাদক

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »