চীনের বিরুদ্ধে 20 ট্রিলিয়ন ডলারের মামলা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

Big News : lawsuit against China. মার্কিন আইনজীবি Larry Klayman চীনের বিরূদ্ধে 20 ট্রিলিয়ন ডলারের যার (ভারতীয় মূল্য 1,52,56,00,00,00,00,000.00 টাকা) মামলা করেছেন।

lawsuit against China বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওয়েবসাইটে প্রাপ্ত সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসটির সর্বপ্রথম চীনের উহান শহরে প্রকাশ পায়। ক্রমশ এই ভাইরাস ১৮৯ টি দেশ বা অঞ্চলজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে, ৩৩৪,০০০ এরও বেশি লোককে সংক্রামিত করেছে।

১৪,৫০০ এরও বেশি মানুষ মারা গেছেন করোনা ভাইরাসের সংক্রামনে এবং দিন দিন এই সংখ্যা বেড়েই চলেছে। ক্রমশ এই ভাইরাস মহামারির আকার ধারণ করেছে।

আমেরিকান আইনজীবি Larry Klayman চীনের বিরূদ্ধে 20 ট্রিলিয়ন ডলারের যার (ভারতীয় মূল্য 1,52,56,00,00,00,00,000.00 টাকা) মামলা করেছেন। কারন বিশ্বজুড়ে 334,000 বেশি মানুষকে সংক্রামিত করেছেন।

এই করোনা ভাইরাস যার প্রথম প্রকাশ পায় চীনে এবং চীনের অসর্তকের দুরুন এই ভাইরাস সারা বিশ্বে ছড়িয়ে যায়।

টেক্সাসের একটি সংস্থা ল্যারি ক্লেমন তার অ্যাডভোকেসি গ্রুপ ফ্রিডম ওয়াচ অ্যান্ড বাজ ফটোস, পক্ষ থেকে Larry Klayman US District আদালতে মামলা দায়ের করেছিলেন। এবং অভিযোগ করেন যে এই করোনা ভাইরাসকে “যুদ্ধের জৈবিক অস্ত্র হিসাবে চীন দ্বারা ডিজাইন করা হয়েছে” যা কিনা US law এর Against.

এই মামলায় বলা হয়েছে, চীন কোনো জৈব রাসায়নিক অস্ত্র ব্যবহার করবে না বলে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত করেছিল। কিন্তু করোনা ভাইরাসের আক্রমনে সেই চুক্তি লঙ্ঘিত করা হয়েছে চীনের পক্ষ থেকে। যা কিনা একটি অপরাধ।

আরো পড়ুন করোনার পর Hantavirus এর খোঁজ পাওয়া গেল চীনে

lawsuit against China

আরো বলা হয়েছে, যে চীনের উহান প্রদেশের একটি রাসায়নিক পরীক্ষাগারে এই করোনা ভাইরাসের বিভিন্ন পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছিল চীনের পক্ষ থেকে। এবং এই ভাইরাসের দ্বারা চীন তার শত্রু দেশ গুলিকে ধংস করার চেষ্টা চালিয়েছে। মার্কিন নাগরিক সহ সারা বিশ্বে বহু দেশের মানুষ আজ সংক্রামিত। এবং যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিল তাদের মধ্যে বহু মানুষ মারা যাচ্ছে।

চীন থেকে ক্রমশ এই ভাইরাস ছড়িয়ে আজ 189 গুলি দেশের কমপক্ষে 334000 জন মানুষ আক্রান্ত এবং দিন দিন এই সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

আরো পড়ুন চীনের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক মামলা করবে ৮৫টি দেশ।

COVID-19 একটি অত্যন্ত বিপজ্জনক রোগ। কারণ এটি একটি অত্যন্ত আক্রমণাত্মক প্রকৃতির। একটি ব্যক্তি থেকে অন্যে রূপান্তর করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছিল। চীনের পক্ষ থেকে এবং এই ভাইরাস খুব দ্রুত এবং সহজেই ছড়িয়ে পড়ে। এটি একটি নতুন রোগ হওয়ার কারণে কোনও ভ্যাকসিন এখনও পাওয়া যায়নি।

তিনি তার মামলায় স্পষ্ট উল্লেখ করেন। এটি চীনের একটি পরিকল্পিত জৈব রাসায়নিক মারণ অস্ত্র। যা পরিকল্পিত ভাবে ব্যবহার করেছে চীন।

অন্যদিকে চন্দ্রিমা ভৌমিক নামের ঐ মহিলা বেলাঘাটার বাসিন্দা। বয়স 29 বছর। তিনি একটু ভুয়ো খবর ফেসবুকে পোস্ট করেন, তিনি পোস্টের মাধ্যমে জানিয়ে ছিলেন বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের একজন ডাক্তার নাকি করোনা ভাইরাসের চিকিৎসা করতে গিয়ে নিজেই আক্রান্ত হয়েছে। যেটা ভুয়ো খবর বলে প্রমানিত।

Financial Tips on Astrology অর্থলাভের চমৎকারী টোটকা

প্রশাসন থেকে বারে বারে বলা হয়েছে যে, কেউ করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত কোন ভুয়ো খবর কোনো মাধ্যমেই ছড়াবেন না। এতে আতঙ্ক বাড়বে।

একদিকে চলছে লকডাউন। সকলেই লকডাউন প্রক্রিয়াকে মেনে চলছে। এমন অবস্থায় ঐ মহিলার ফেসবুকে ভুয়ো খবর পোস্ট করায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »