অশ্বডিম্ব, কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজ কে কেন কটাক্ষ মমতার

12ই মে 2020 দেশের প্রধান মন্ত্রী ‘করোনা মোকাবিলার পরিস্থিতিতে আত্মনির্ভর ভারত নাম দিয়ে কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছিলেন। আজ 13 ইমে 2020 ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন তার কিছু বিশ্লেষণ করলেন প্রেস কনফারেন্সের মাধ্যমে।

তার এই ঘোষণার পর যা দাড়াল তা অশ্বডিম্ব – এভাবেই কেন্দ্রের করোনা প্যাকেজের সমালোচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। প্য়াকেজে রাজ্যগুলির জন্য কিছু নেই বলে দাবি করেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী ৷

আরো পড়ুন ছিল অঙ্কের শিক্ষক হয়ে গেল হিজবুলের পোস্টার বয়, কে এই রিয়াজ নাইকু

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশ্ন, – রাজ্যগুলি কীভাবে চালাবে?

করোনা মকোবালির এই মহামারি পরিস্থিতিতে ভারতকে ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য উনি আত্মনির্ভর কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজ বলে দাবি করে 20 লক্ষ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন বলে ভাষণ দেন। আজ সেই প্যাকেজের কোন খাতে কি কি বরাদ্দ ইত্যাদি নিয়ে বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিলেন ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন। আর কেন্দ্রের এই প্যাকেজ কে আইওয়াশ বলে কটাক্ষ মাননীয় মূখ্যমন্ত্রীর।

[jetpack_subscription_form show_only_email_and_button=”true” custom_background_button_color=”undefined” custom_text_button_color=”undefined” submit_button_text=”Subscribe” submit_button_classes=”undefined” show_subscribers_total=”true” ]

এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মমতা বলেন, ‘বিগ জিরো, কাল যে কথা বলা হয়েছিল, তাতে রাজ্যগুলো হয়ত কিছু পাবে। রাজ্যের সার্বিক উন্নতিতে যা কাজে আসবে। বাস্তবে অশ্বডিম্ব দেখতে পেলাম।’

ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলার সেই ঘোষণার পরই গর্জে উঠলেন মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন নবান্নে সাংবাদিক বৈঠক করে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘বিগ জিরো, কাল যে কথা বলা হয়েছিল, তাতে রাজ্যগুলো হয়ত কিছু পাবে। রাজ্যের সার্বিক উন্নতিতে যা কাজে আসবে। বাস্তবে অশ্বডিম্ব দেখতে পেলাম।’

কেন্দ্রের আর্থিক প্যাকেজ

মোদীর ঘোষিত প্যাকেজ যে আসলে ২০ লাখ কোটির নয়, বাস্তবে তা গিয়ে দাঁড়াচ্ছে মাত্র ৪ লাখ কোটির মতো। তা এদিন মুখ্যমন্ত্রীর আগে রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রই স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন। তিনি বলেন, এই প্যাকেজে যা দাঁড়াচ্ছে তাতে ঘোষণা মতো জিডিপির ১০ শতাংশ তো নয়, বড়জোড় ২ শতাংশই হবে। সেই প্রসঙ্গ টেনেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দশ লক্ষ কোটি টাকা অলরেডি ঘোষণা ছিলই, কিচ্ছু দেয়নি রাজ্যগুলোকে, চলবে কী করে? আমরাই তো বাংলার ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পের জন্য ৯০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছি।

[jetpack_subscription_form show_only_email_and_button=”true” custom_background_button_color=”undefined” custom_text_button_color=”undefined” submit_button_text=”Subscribe” submit_button_classes=”undefined” show_subscribers_total=”true” ]

কেন্দ্রের প্যাকেজকে পুরোপুরি ভুয়ো বলে কটাক্ষ করে মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ‘সাধারণ মানুষকে তো নগদ টাকা দিতে পারতেন। অসংগঠিত ক্ষেত্রে কিছুই নেই, চাকরি, স্বাস্থ্য, বাজার, করোনা মোকাবিলায় কিছুই নেই। কিচ্ছু নেই এই প্যাকেজে। ধোঁকা দেওয়া হল সাধারণ মানুষদের এই দুর্দিনে। রিজার্ভ ব্যাংক থেকে রাজ্যের জন্যে ঋণের ব্যবস্থাও তো করে যেত। সেটাও করলেন না। কৃষকদের ঋণ মকুব করতে পারতেন। তাও নেই। শূন্য থালা নিয়ে পেটের ভাত ভরবে? ভুয়ো তথ্য দেওয়া হল, ইনকাম ট্যাক্সের সময় বাড়ালাম-এটা তে কী হয়?’

Read Astrology Magazine

তিনি রীতিমতো ক্ষোভ দেখিয়ে তিনি বলেন, ‘একটাও পয়সাও দেওয়া হল না, যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোকে নষ্ট করা হল, লকডাউনের নামে রাজ্যগুলোকে লকআউট করে দিল। গণতন্ত্র থমকে গেছে। মানুষের বাঁচার অধিকার থমকে গেছে। আমরা এখনও ১০০% বেতন দিয়ে যাচ্ছি।’

[jetpack_subscription_form show_only_email_and_button=”true” custom_background_button_color=”undefined” custom_text_button_color=”undefined” submit_button_text=”Subscribe” submit_button_classes=”undefined” show_subscribers_total=”true” ]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »