আগামী সূর্যগ্রহণে করোনা ধ্বংস হবে। দাবি করেছেন চেন্নাইয়ের বিজ্ঞানী Dr KL Sundar Krishna

Dr KL Sundar Krishna এর দাবি এবার ধ্বংস হবে করোনা ভাইরাস !

Dr KL Sundar Krishna এর করোনা ভাইরাস বা COVID 19 নিয়ে একটি দাবি নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে শুরু হয়েছে চাঞ্চল্য। তিনি বলেছেন আগামী সূর্য গ্রহণে ( 21শে জুন 2020 ) ধ্বংস হবে করোনা ভাইরাস। কি বৈজ্ঞানিক ব্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি জানুন বিস্তারিত।

26শে ডিসেম্বর 2019 সালে আমরা একটি সূর্যগ্রহণের সাক্ষী ছিলাম। এই দিনই করোনা নামক একটি ভাইরাসের উৎপত্তি ঘটে চীনের ইউহান শহরে। ক্রমশ সেই ভাইরাস আজ মহামারি সারা বিশ্বে। এখন সেই করোনা ভাইরাস বা COVID 19 এর দাপট কমেনি। সারা বিশ্ব সহ আমাদের দেশেও এই মহামারিতে কেড়ে নিয়েছে প্রচুর প্রাণ। এখনো পর্যন্ত কোনো প্রতিষেধক বা প্রয়োজনীয় ওসুধ তৈরী করা সম্ভব হয় নি।

আগামী সূর্যগ্রহণে করোনা ধ্বংস হবে। দাবি করেছেন চেন্নাইয়ের বিজ্ঞানী Dr KL Sundar Krishna

26 ই ডিসেম্বর 2019 এই পর আগামী 21 শে জুন 2020 এই তারিখে আর একটি সূর্য গ্রহণ হতে চলেছে। আর এই সূর্য গ্রহণকে কেন্দ্র করে চেন্নাইয়ের নিউক্লিয়ার ও আর্থ সায়েন্টিস Dr KL Sundar Krishna এর দাবী এই সূর্য গ্রহণে ধ্বংস হবে করোনা ভাইরাস।

না না, উনি জ্যোতিষী নন। তিনি কোনো জ্যোতিষী গবেষণায় এই মন্তব্য করেন নি। তিনি একজন নিউক্লিয়ার ও আর্থ সায়েন্টিস।

আসুন জেনেনি, কি ব্যাখ্যা তিনি দিয়েছেন করোনা ভাইরাস বা COVID 19 এই ধ্বংসের প্রসঙ্গে 21শে জুন 2020 সালের সূর্য গ্রহণ নিয়ে।

তিনি প্রথমে উল্লেখ করেছেন, 26 শে ডিসেম্বর 2019 সালে প্রথম করোনা ভাইরাস বা COVID 19 সংক্রামন শুরু হয়। ঐ দিনে একটি ঘটে ছিল একটি সূর্য গ্রহণ। আগামী 21 শে জুন 2020 সালেও ঘটতে চলেছে আর একটি সূর্যগ্রহণ।

তিনি দাবি করেছেন, করোনা ভাইরাস বা COVID 19 এর সাথে গ্রহ নক্ষত্রের যোগসূত্র রয়েছে। এর সাথে জড়িয়ে আছে একটি মহাজাগতিক একটি ঘটনা বা পরিবেশ গত পরিস্থিতি। তিনি তার ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে গত 26শে ডিসেম্বর 2019 সালের ঐ দিনে ঘটিত সূর্য গ্রহণের কথা উল্লেখ করেন।তিনি বলেন, ঐ সূর্য গ্রহণের ফলে পৃথিবীর বায়ুমন্ডলের স্তরের মধ্যে এমন একটি রাসায়নিক পরিবর্তন হয়, যার থেকে জন্ম নেয় এই ভাইরাস।

Dr KL Sundar Krishna তার একটি থিয়োরি দিয়ে ব্যাখ্যা করেছেন, যে 26শে ডিসেম্বর 2019 সালে ঘটে যাওয়া ঐ সূর্য গ্রহণের সময় পৃথিবীর বায়ুমন্ডলে তড়িৎদাহ কণাদের মধ্যে একটি বিশাল আকারের রাসায়নিক পরিবর্তন ঘটেছে। এই পরিবর্তন এমন একটি নিউক্লিয়ার রিঅ্যাকশন যার কারণে নিউট্রনের বদল শুরু হয়। এমন একটি পরিবর্তন ঘটে, যার ফলে করোনা ভাইরাসের নিউক্লিয়াস তৈরী হয়। এই বায়ো-নিউক্লিয়ার ইন্টার‍্যাকশন করোনা ভাইরাস বা COVID 19 তৈরী হওয়ার একমাত কারণ।

তিনি আরো দাবী করেন, করোনা ভাইরাস বা COVID 19 নামক এই ভাইরাস তৈরী হয় বায়ুমন্ডলের আয়নোস্ফিয়ার স্তরে। সমগ্র বায়ুমন্ডল মোট চারটি স্তরে বিভক্ত। আয়নোস্ফিয়ার স্তরের অবস্থান ভূপৃষ্ঠের ৬০ থেকে ১৫০ কিলোমিটার উপরে। সূর্যরশ্মির প্রভাবে ঐ স্তরে তড়িদাহত কণা তৈরি হয়। দিনের বেলায় প্রায় 60 কিলোমিটার উচ্চতায় এই তড়িদাহত কণা পাওয়া যায়। যা রাতের বেলায় 90 কিলোমিটার উচ্চতায় উঠে যায়।

জেনে নিন জন্ম তারিখ অনুযায়ী আপনি কেমন মানুষ ? Numerology

আয়নোস্ফিয়ারের ৬০ থেকে ৯০ কিলোমিটার, এই স্তরটিকে বলা হয় ‘ডি-লেভেল’। এই আয়নোস্ফিয়ারকে কাজে লাগিয়ে রেডিও তরঙ্গ প্রতিফলিত করে বার্তা লেনদেন করা হয়, যেমন ধরুণ মোবাইল ফোন ইত্যাদি। এই স্তরে কীভাবে ভাইরাস তৈরি হতে পারে তার কোনও ধারণাই দিতে পারছেন না বিজ্ঞানীরা।

আরো পড়ুন কবে করোনা থেকে মুক্তি পাবো ? কি বলছে জ্যোতিষ বিচার

যদিও Dr KL Sundar Krishna আরও দাবি করেছেন , এক সূর্যগ্রহণে ভাইরাস তৈরি হয়েছিল, পরবর্তী আর এক সূর্যগ্রহণে সেই ভাইরাস ধ্বংস হয়ে যাবে। আগামী ২১ জুন 2020 পুনরায় সূর্যগ্রহণ হবে, এবং এবার একই সঙ্গে হবে সূর্যের বলয়গ্রাস ও পূর্ণগ্রাস গ্রহণ। এই গ্রহণেই নাকি করোনা ভাইরাস বা COVID 19 মহামারীর অবসান হতে চলেছে। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »