বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার নাম নিয়ে হুমকি, গ্রেফতার জিম প্রশিক্ষক

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার নাম নিয়ে হুমকি সঞ্জয় রাউতকে, টালিগঞ্জ থেকে পুলিশ গ্রেখতার করুল জিম প্রশিক্ষক। কেন হুমকি বিস্তারিত পড়ুন ক্রাইম নিউজ

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার নাম নিয়ে হুমকি বিশেষ প্রতিবেদন Aishwarya Chakraborty :

শিবসেনা তথা মহারাষ্ট্র সরকার বনাম কঙ্গনা রানাওয়াতের সংঘাতের আঁচ বঙ্গেও এসে পৌঁছালো। বলিউড কুইনের নাম নিয়ে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউতকে ফোনে হুমকি দেওয়ার অভিযোগে টালিগঞ্জ থেকে এক যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ।

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার নাম নিয়ে হুমকি, গ্রেফতার জিম প্রশিক্ষক


সূত্রে খবর, ওই যুবকের নাম পলাশ বসু। ৪০ বছর বয়সী পলাশ একটি জিমের প্রশিক্ষক । তার বিরুদ্ধে অভিযোগ,তিনি ভয়েস ওভার ইনটারনেট প্রোটোকল টেকনোলজির সাহায্যে সঞ্জয় রাউতকে ফোনে হুমকি দেন। ফোনের আই পি অ্যাড্রেস দেখে কলকাতা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করে মুম্বই পুলিশ।তারপরেই বৃহস্পতিবার রাতেই গ্রেফতার হন পলাশ। তাঁর ল্যাপটপ ও মোবাইল বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদোহিতার মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। শুক্রবার তাকে আলিপুর আদালতে পেশ করা হয় বলে খবর। সূত্রে খবর, ধৃত যুবককে মুম্বই নিয়ে যাওয়ার জন্য ট্রানজিট রিমান্ডের আবেদন করবে মুম্বই পুলিশ।তবে পলাশের পরিবারের দাবি এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। পলাশের আইনজীবীর দাবি, তার মক্কেল কোনোও দিনই কঙ্গনার ভক্ত নয়।

তাহলে কেন শিবসেনা সাংসদকে হুমকি দেবেন তিনি। তাঁর দাবি অভিযোগের সত্যতা প্রমাণ করতে পারেনি মুম্বই পুলিশ। জোর করে গ্রেফতার করা হয়েছে তাকে।

বলিউড অভিনেত্রী কঙ্গনার নাম নিয়ে হুমকি, গ্রেফতার জিম প্রশিক্ষক


সঞ্জয় রাউতের সাথে কঙ্গনার সংঘাতের সূত্রপাত কদিন আগেই। বলিউডের অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর মুম্বইকে ” পাক অধিকৃত কাশ্মীরের” সাথে তুলনা করেন কঙ্গনা। তাতেই বেজায় চটেন সঞ্জয়।

তিনি সাংবাদিকদের জানান,”যেরকম কঙ্গনা রানাওয়াত মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেছেন,তাঁর কী সাহস রয়েছে আহমেদাবাদ কে মিনি পাকিস্তানের সঙ্গে তুলনা করার”। তার কথায়, “যদি কঙ্গনা, মুম্বই ও মহারাষ্ট্রকে মিনি পাকিস্তান বলার জন্য ক্ষমা চান,তাহলে আমরা ভেবে দেখব। তাঁর কী সাহস রয়েছে একই কথা আহমেদাবাদের নামে বলার?”

বিজেপি রাজ্য কমিটি তে জায়গা পেয়েই কি সুর বদলাে বৈশাখী


সঞ্জয় রাউতের এরূপ মন্তব্য বেজায় চটে বিজেপি। গুজরাটে বিজেপির মুখপাত্র ভরত পান্ডিয়ার কথায়, শিবসেনা নেতা আহমেদাবাদ কে মিনি পাকিস্তানের সঙ্গে তুলনা করে গুজরাতকে অপমান করেছেন। সঞ্জয় রাউতের উচিত গুজরাট,আহমেদাবাদ ও এখানকার বাসিন্দার কাছে ক্ষমা চাওয়া।”


ইতিমধ্যেই সঞ্জয়ের হুঁশিয়ারি,কঙ্গনা ক্ষমা না চাইলে, তার মুম্বইয়ে থাকার কোনো অধিকার নেই। যদিও এর জবাবে কঙ্গনার বক্তব্য,”সঞ্জয় রাউত বলেছেন , আমাকে মুম্বইয়ে ঢুকতে দেওয়া হবে না।ওনার লোকেরা আমাকে ভয় দেখাচ্ছে ।কিন্তু এভাবে আমাকে দমিয়ে রাখা যাবে না।” এই বিতর্কের আসরে নামে কেন্দ্র। কঙ্গনার বাবার আবেদনের ভিত্তিতে কঙ্গনাকে ওয়াই ক্যাটাগরির নিরাপত্তা দেয় কেন্দ্র।

তবে মুম্বইয়ে তার অফিসে বেআইনি নির্মাণ হয়েছে অভিযোগ তুলে কঙ্গনার অফিস ভাঙে বৃহন্মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন। যদিও বোম্বে হাইকোর্টে আদেশে সেই কাজ বন্ধ করতে বাধ্য হয়েছে বিএমসি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »