আমফান পরিস্থিতিতে বাংলার বিক্ষোভ জল নেই বিদ্যুত নেই

আমফান পরিস্থিতিতে বাংলার বিক্ষোভ : সময় যত গড়াচ্ছে, ততই অধৈর্য হয়ে পড়ছেন সাধারণ মানুষ। বিক্ষোভে ফেটে পড়ছে আমফান তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষেরা। অসহায় অবস্থায় দুর্ভোগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন বাসিন্দারা। চোখে পড়ল প্রতিবাদী বাংলা বিস্তারিত পড়ুন।

একদিকে করোনা তারপরে চলছে লকডাউন, তার উপর আমফান আগমন ! বিধ্বস্ত, বিপর্যস্ত আমার আপনার প্রিয় বাংলা। ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবের ৪ দিন পরেও নেই বিদ্যুৎ, নেই জল । বিচ্ছিন্ন হয়েগেছে টেলি যোগাযোগ ব্যবস্থা। চলছে যুদ্ধ কালীন তৎপরতা। রাজ্যের রাজধানী শহর কলকাতা থেকে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলা, সর্বত্র ছবিটা একই রকমের। আর সময় যত গড়াচ্ছে, ততই অধৈর্য হয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়ছে সাধারণ মানুষ। অসহায় অবস্থায় দুর্ভোগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন বাসিন্দারা।

আমফান পরিস্থিতিতে বাংলার বিক্ষোভ

।। কলকাতা পরিস্থিতি ।।


* ৪ দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই এলাকায়। অনেক জায়গায় নেই জল সরবরাহ । শোচনীয় অবস্থা রয়েছেন বিশেষ করে কলকাতাবাসী মহিলা, শিশু, অসুস্থ রোগীরা। প্রশাসনকে বারবার বলেও কোন লাভ হয়নি, উমনই অভিযোগ করছেন অনেকে । সহ্যের চরম সীমায় পৌঁছে গিয়েছে সময় । এই অভিযোগে রাস্তা অবরোধ করলেন নেতাজি নগর টেগোর পার্কের বিক্ষুব্ধ বাসিন্দারা। 


* বিদ্যুৎ-জলের দাবিতে বেহালা চৌরাস্তায় বকুলতলা মোড়ে এদিন সকালে ৩ ঘন্টা ধরে রাস্তা অবরোধ করেন স্থানীয় মানুষেরা।


* জলমগ্ন খিদিরপুর অঞ্চল। ভূ-কৈলাস রোডের প্রতিটি বাড়িতে হাঁটু সমান জল দাঁড়িয়ে আছে । ৩ দিন ধরে ঘরবন্দি ঐ এলাকার বাসিন্দারা। এলাকায় তীব্র জল সঙ্কট তৈরী হয়েছে।


*বউবাজার এলাকা এখনও বিদ্যুৎহীন। রাস্তা জুড়ে পড়ে আছে বিদ্যুতের খুঁটি। বার বার বলা সত্ত্বেও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না। এই অভিযোগে এদিন হ্যারিকেন নিয়ে প্রতিবাদ জানালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। 

আরো পড়ুন Dilip Ghosh not allowed to go to the cyclone-ravaged areas police says he didn’t have permission


*৪ দিন ধরে বিদ্যুৎ-জল নেই ইএম বাইপাসের উপর বিস্তীর্ণ এলাকায়। এদিন বিক্ষোভ ফেটে পড়লেন বাসিন্দারা। ভিআইপি মার্কেট ক্রসিংয়ে পুলিসের সামনেই লোহার রেলিং দিয়ে রাস্তা অবরোধ করলেন স্থানীয়রা। 

।। বসিরহাট পরস্থিতি ।।


বিদ্যুৎ নেই। জল সরবরাহ নেই । আমফান ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্ত বসিরহাটের ভ্যাবলায় বিদ্যুৎ ও পানীয় জলের দাবিতে এদিন রাস্তা অবরোধ করেন স্থানীয় মনাুষেরা । বিক্ষোভকারীরা অভিযোগ করে, ঝড়ের আগের দিন থেকেই এলাকা বিদ্যুৎবিহীন। নেই পানীয় জলও। পানীয় জলের জন্য ভরসা বলতে এলাকায় থাকা একটিমাত্র টিউবওয়েল। চূড়ান্ত দুর্ভোগের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন ঐ অঞ্চলের স্থানীয় বাসিন্দারা।

।। কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়ে অবরোধ ।।


বিদ্যুৎ ও জলের দাবিতে কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়েতেও অবরোধ করলেন গ্রামবাসীরা। ঘটনাটি ঘেটেছে কল্যাণী এক্সপ্রেসওয়েতে দোপেরিয়া মোড়ে। বন্দিপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় আমফান বিপর্যয়ের পর থেকেই বিদ্যুৎ নেই – জল নেই। স্থানীয়দের অভিযোগ, পঞ্চায়েতকে জানিয়েও কোনও কাজ হয়নি। তাঁদের দাবি, যতক্ষণ না বিদ্যুৎ পরিষেবা স্বাভাবিক হবে, ততক্ষণ তাঁরা এই অবরোধ  চালিয়ে যাবে। এই অবরোধের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছায় বিশাল পুলিসবাহিনী। পুলিশের সাথে বচসা বিবাদে জড়িয়ে পড়ে অবরোধকারীরা। উত্তেজনা তৈরী হয়। বিক্ষোভ ছত্রভঙ্গ করতে পুলিস লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। এই পরিস্থিতে আহত হয়েছেন একজন পুলিসকর্মীও।

।। শেওড়াফুলি পরিস্থিতি ।।


এখানেও একই অবস্থা। জল নেই, বিদ্যুত নেই। একই দাবিতে অবরোধ চলল। গতকালের পর আজও আবার হুগলী জেলার বিভিন্ন জায়গায় অবরোধ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা।এমনকি শেওড়াফুলি ৪ নম্বর রেলগেটের সামনে জিটি রোডের উপর গাছ ফেলে পথ অবরোধ করেন এলাকাবাসী।

।। মহেশতলায় বিক্ষোভ ।।


দক্ষিণ ২৪ পরগনার মহেশতলা পুরসভার ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দারা এদিন ফের বিদ্যুতের দাবিতে বজবজ ট্রাঙ্ক রোড অবরোধ করেন বলে জানা গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সারেঙ্গাবাদ এলাকায়। অবরোধ তুলতে গেলে পুলিসের সঙ্গে স্থানীয়দের বচসা ও হাতাহাতি বেঁধে যায়। প্রায় ঘণ্টা দেড়েক চলে অবরোধ। অবেশেষে পুলিশ সেই অবরোধ তুলতে সক্ষম হয়।

।। চুঁচুড়া চকবাজার রোড অবরোধ ।।


এখনও বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন এলাকা হুগলীর বিভিন্ন এলাকায় । অবিলম্বে বিদ্যুৎ পরিষেবা চালু করার দাবিতে হুগলীর চুঁচুড়া চকবাজার রোড অবরোধ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। অভিযোগ ওঠে, এলাকার বহু মানুষ রমজানের উপবাসে রয়েছে। আজ সকাল থেকে বিদ্যুৎ দফতরের লোকদের দেখা পাওয়া যায় নি। পুরসভার কর্মীদেরও দেখা নেই ।

।। হাওড়ায় অবরোধ


জল ও বিদ্যুতের দাবিতে আজও হাওড়া শহরের বিভিন্ন জায়গায় পথ অবরোধ চলছে। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ , ঘূর্ণিঝড়ের পর থেকে এখনও বিদ্যুৎ আসেনি বিভিন্ন অঞ্চলে। পানীয় জলের সরবরাহ নেই। এখনও রাস্তায় অনেকে জায়গায় গাছ পড়ে আছে। মোবাইল পরিষেবা নেই। অবরোধের খবর পেয়ে পুলিস বিক্ষোভকারীদের তুলতে গেলে পুলিসের সাথে বচসা বেধে যায় অবরোধকারী উত্তেজিত জনতাদের সাথে। 

বিনামূল্যে জ্যোতিষ ম্যাগাজিন পড়ুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »