রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল বদলি হলেন চার পুলিশ সুপার, দুই ডিসি

রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল বিশেষ প্রতিবেদন: Aishwarya Chakraborty: মহালয়ার প্রাক্কালেই রাজ্য পুলিশের উচ্চ পর্যায়ে বড়সড় পরিবর্তন করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

সোমবার রাতে নবান্নের তরফে এই নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে। আইজির তরফ থেকে প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তিতে দেখা যাচ্ছে, চার পুলিশ সুপারকে বদল করা হয়েছে।

রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল বদলি হলেন চার পুলিশ সুপার, দুই ডিসি


বারুইপুরের এসপি রশিদ খান মুনীরকে কলকাতা পুলিশের সাউথ সুবার্বন ডিভিশনের ডিসি পদে নিয়োগ করা হয়েছে। তার জায়গায় যাচ্ছেন কামনাশীষ সেন। কোচবিহারের এসপি এন সন্তোষ এবার দার্জিলিংএর এসপির দায়িত্ব পালন করবেন। কোচবিহারের এসপি হচ্ছেন সানা আখতার। এবার এসটিএফের ভূমিকা পালন করবেন অমরনাথ দে।

Monalisa কালো বিকিনিতে স্বামীর সাথে জলকেলিতে মগ্ন


তবে সংবাদমাধ্যমের জল্পনা আরামবাগে বিজেপি নেতার মৃত্যু নিয়ে সরগরম পরিস্থিতির জন্য সরতে হলো হুগলির রুরালের এসপি তথাগত বসুকে। তিনি দায়িত্ব নিলেন বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট এর ডিসি নিউ টাউন পদে। নিউটাউনের ডিসি কে সেন চলে যাচ্ছেন বারুইপুর জেলার এসপি পদে। হুগলির রুরালের এস পি হচ্ছেন আমনদীপ।

ভোটের আগেই রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল করল রাজ্য প্রশাসন।

রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল বদলি হলেন চার পুলিশ সুপার, দুই ডিসি

এদিকে কৃষ্ণগঞ্জের তৃণমূল বিধায়ক সত্যজিৎ বিশ্বাসকে খুনের ঘটনায় সোমবার সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট পেশ করলো সিআইডি। সেই চার্জশিটে নাম রয়েছে নদিয়ার রানাঘাটের বিজেপি সাংসদ জগন্নাথ সরকারের।

তদন্তের দায়ভার নেওয়ার পর জগন্নাথ সরকারকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ।কিন্তু রানাঘাট আদালতে সিআইডির পেশ করা প্রথম চার্জশিটে তাঁর নাম ছিল না।

২০১১ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী পদে আসার পর রাজ্যে প্রথম বিধায়ক হিসেবে খুন হন সত্যজিৎ বিশ্বাস। এই ঘটনার জন্য হাঁসখালি থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। গত বছরেই আততায়ীদের গ্রেফতার করা হয়েছিল।

সিআইডির দাবি, বিধায়ক খুনের আগে এবং পরে এই ঘটনায় অভিযুক্ত অভিজিৎ কুন্ডারি এবং নির্মল ঘোষকে বেশ কয়েকবার ফোন করেন সাংসদ জগন্নাথ সরকার। তাঁদের কল ডিটেলস সিআইডির হাতে এসেছে।

রাজ্য পুলিশে বড়সড় রদবদল বদলি হলেন চার পুলিশ সুপার, দুই ডিসি

সাংসদ জগন্নাথ সরকার এই মুহূর্তে দিল্লিতে আছেন । তার বক্তব্য,’ এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ছাড়া আর কিছুই নয়। কারণ, নদীয়ার এই মুহূর্তে তৃণমূলের অবস্থান ভয়াবহ। আমাকে ফাঁসানো হচ্ছে।

এর আগেও আমাকে সিআইডির তরফে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। প্রথম চার্জশিটে আমার নাম ছিলো না। বিচার ব্যবস্থার ওপর আমার পূর্ণ আস্থা রয়েছে।’

২০১৮ এর ফেব্রুয়ারির রাতে ফুলবাড়ি এলাকায় সরস্বতী পুজোর উদ্বোধন করতে এসে আততায়ীদের খুব কাছ থেকে একাধিকবার গুলিতে গুরুতর জখম হন সত্যজিৎ বিশ্বাস। তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকেরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »