মা হওয়ার আগের প্রস্তুতি গুলি জেনে নিন Bengali Health Tips

মা হওয়ার আগে কোন কোন বিষয় গুলি মাথায় রাখবেন জেনে নিন

মা হওয়ার আগের প্রস্তুতি – মা হওয়ার পরিকল্পনা করার সময় প্রত্যেক মহিলারই কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে , যাতে প্রেগনেন্সির সময় কোনও সমস্যা না হয়। কিন্তু অনেকেই প্রেগনেন্সি প্ল্যানিং করার সময় কিছু ভুল করেন , যে কারণে গর্ভধারণের ক্ষেত্রে বা গর্ভাবস্থায় নানা সমস্যা দেখা দেয়। গর্ভাবস্থায় মহিলাদের অনেক শারীরিক এবং মানসিক পরিবর্তন হয়। তাই মা এবং শিশুর সুস্বাস্থ্যের জন্য কিছু পরিকল্পনা গর্ভাবস্থায় আগেই করা ভাল। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক, গর্ভবতী হওয়ার আগে কোন কোন বিষয়ের দিকে নজর দেওয়া উচিত।

প্রেগন্যান্সি টেস্ট সকালে কেন করা হয় ? রাতে এই পরীক্ষার সমস্যা কোথায় ?

মা হওয়ার পরিকল্পনার গুরুত্বপূর্ণ বিষয় গুলি কি কি 

মা হওয়ার আগের প্রস্তুতি গুলি জেনে নিন Bengali Health Tips

মা হওয়ার পরিকল্পনা

শুরু করলে সর্বপ্রথমে একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন। তাহলে আপনি হেলদি প্রেগনেন্সির প্ল্যান তৈরি করতে সক্ষম হবেন। গর্ভধারণের প্রি-প্রেগনেন্সি পিরিয়ড বা তিন মাস আগে , ডাক্তারের পরামর্শমত জীবনযাত্রায় পরিবর্তন করলে, উপকারি । গর্ভবতী হওয়ার আগে আপনার মেডিকেল হিস্ট্রি একজন ডাক্তারের সাথে অবশ্যই আলোচনা করবেন এবং নিম্নলিখিত বিষয়গুলিতে মনোনিবেশ করবেন – Bengali Health Tips

মা হওয়ার আগের প্রস্তুতি 

গর্ভধারনের আগে কিছু বিশেষ পরামর্শ

১) ফাইব্রয়েড এবং এন্ডোমেট্রিওসিসের পরীক্ষা করিয়ে নিন।

২) আপনার পরিবারে যদি ডাউন সিনড্রোম বা থ্যালাসেমিয়ার ইতিহাস থেকে থাকে তবে ডাক্তারকে এ সম্পর্কে জানান।

৩) আপনার যদি মূত্রনালীতে সংক্রমণ হওয়ার কোনও সম্ভাবনা থাকে, তবে পরীক্ষা করিয়ে নিন । সমস্যা থাকলে গর্ভধারণের আগে সম্পূর্ণ চিকিৎসা করান।

আর্থিক উন্নতি তে বাধা কাটানোর সহজ উপায় ঘরোয়া টোটকা

৪) আপনার যদি ডায়াবেটিস, থাইরয়েড, হাঁপানি, কিডনি, হৃদরোগ, ইত্যাদি সমস্যা থাকে, তবে অবশ্যই গর্ভাবস্থার আগে সেগুলি নিয়ন্ত্রণ করুন ।

মা হওয়ার আগের প্রস্তুতি গুলি জেনে নিন Bengali Health Tips

৫) এইচআইভি, হেপাটাইটিস বি, সিফিলিস, ইত্যাদি গর্ভাবস্থার আগে পরীক্ষা করিয়ে নিন, যাতে এই সংক্রমণ শিশুর শরীরের মধ্যে না যায়।

৬)আপনার ওজন বেশি হয় এবং বডি মাস ইনডেক্স (BMI) ২৩ বা তারও বেশি হলে, তবে ডাক্তার আপনাকে ওজন হ্রাস করতে পরামর্শ দেবেন। আর যদি আপনার ওজন কম হয় তবে আপনার BMI বাড়ানোর নিরাপদ পদক্ষেপগুলি সম্পর্কে ডাক্তারের সঙ্গে আলোচনা করুন। আপনার BMI ১৮.৫ এবং ২২.৯ এর মধ্যে হওয়া উচিত। এই বিষয়গুলি অবশ্যই মনে রাখবেন, তাহলে গর্ভধারণের ক্ষেত্রে কম অসুবিধার মুখোমুখি হবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »