থাইরয়েডের সমস্যা কে নিয়ন্ত্রন করবেন কি ভাবে ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

থাইরয়েডের সমস্যা কে নিয়ন্ত্রন করার ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

থাইরয়েডের সমস্যা – আজকের যুগে থাইরয়েডের সমস্যা খুবই সাধারণ। একবার কবলে পড়লে তা থেকে মুক্তি পাওয়া বেশ সহজ নয়! থাইরয়েড গ্রন্থির গলায় থাকে। এই গ্রন্থির কাজ শরীরের কিছু অতিপ্রয়োজনীয় হরমোন তৈরী করা। আমাদের শরীরের থাইরয়েড হরমোনের একটি নির্দিষ্ট মাত্রা আছে।

নির্দিষ্ট মাত্রার থেকে কম বা বেশি হরমোন উৎপাদিত হলেই, শরীরের উপর বিভিন্ন রকমের অসুবিধা দেখা দেয়। যথাযথ খাদ্যগ্রহণ এবং জীবনযাত্রা ঠিক রেখে মাধ্যমে থাইরয়েড নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

প্রজাপতি আকৃতির থাইরয়েড গ্রন্থির ক্ষমতা কিন্তু অপরিসীম। বিপাক থেকে বৃদ্ধি সবেতেই এর প্রভাব । থার্মোরেগুলেশন, হরমোনাল ফাংশন এবং ওজন পরিচালনায় এই গ্রন্থি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা আছে। যারা থাইরয়েডের সমস্যায় ভুগছেন এবং নিজেকে সুস্থ রাখতে চান,

থাইরয়েডের সমস্যা কে নিয়ন্ত্রন করবেন কি ভাবে ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

এই পদ্ধতিগুলি ব্যবহার করতে পারেন –

১) জাঙ্ক ফুড থেকে দূরে থাকা

জাঙ্ক ফুড এবং প্রক্রিয়াজাত খাবার থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখুন। এগুলি স্বাস্থ্যের জন্য খুব খারাপ। তাই যত তাড়াতাড়ি সম্ভব এই সমস্ত খাবার খাওয়া বন্ধ করুন, আপনি নিজেই আপনার স্বাস্থ্যের উন্নতি দেখতে পাবেন।

আরো পড়ুন গ্রহ দোষ নিবারণের উপায় অব্যর্থ টোটকা

 

২) নিয়মিত এক্সারসাইজ

বর্তমান যুগে আমাদের এত শারীরিক ও মানসিক সমস্যা হওয়ার সবথেকে বড় কারণ , অগোছালো জীবনযাপন । তাই নিয়মিত এক্সারসাইজ করা স্বাস্থ্য ঠিক রাখার জন্য অত্যন্ত প্রয়োজনীয় । যোগাসন, নাচ, মর্নিং ওয়াক বা আপনার পছন্দমতো যেকোনও কিছু করতে পারেন। এর প্রধান উদ্দেশ্য , শরীরের অতিরিক্ত ক্যালোরি ঝরানো এবং শরীরকে সুস্থ সবল রাখা।

আরো পড়ুন বরুণ ধাওয়ানের ডায়েট প্ল্যান Varun Dhawan Diet Plan 

৩) খাবার আস্তে খাওয়া

খাবার খাওয়ার সময় তাড়াতাড়ি না করে, আস্তে আস্তে ভালো করে চিবিয়ে তৃপ্তি করে খান। তাহলে আপনি মানসিক শান্তি পাবেন। মনোযোগ দিয়ে ভালো করে চিবিয়ে খাওয়া থাইরয়েড এবং মনের মধ্যে গভীর সংযোগ তৈরী করে । থাইরয়েড গ্রন্থি শরীরের বিপাক নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, তাই আস্তে আস্তে খাবার চিবিয়ে খেলে তা পাচনক্রিয়া বাড়াতে সহায়তা করে।

আরো পড়ুন Bird Flue নিয়ে আবার শিরোনামে চিন, মানব শরীরে Bird Flue H10N3 স্ট্রেন

৪) যোগাসন করা

যোগাসনের জনপ্রিয়তা দিনে দিনে বাড়ছে। স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারি । শারীরিক অনেক সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে সাহায্য করে নিয়মিত যোগাসন। এমন অনেকেই আছেন, যারা নিয়মিত যোগাসন করেন। বিশেষত যাদের থাইরয়েড আছে তাদের জন্য যোগাসন ভীষণ প্রয়োজনীয় ।

 

থাইরয়েডের সমস্যা কে নিয়ন্ত্রন করবেন কি ভাবে ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

আরো পড়ুন আদার উপকারিতা গ্যাসের সমস্যা আদা খাওয়ার পদ্ধতি জেনে নিন

৫) সবুজ শাকসবজি রান্না করে খাওয়া

প্রমাণিত হয়েছে যে , কিছু নির্দিষ্ট শাকসবজি আছে যেগুলি কাঁচা অবস্থায় খেলে, থাইরয়েড গ্রন্থির কাজ ব্যাহত হয়, যেমন – বাঁধাকপি, ব্রকোলি, ব্রাসেলস স্প্রাউট, ফুলকপি, ইত্যাদি । এই সব সবজিতে কাঁচা খেলে থাইরয়েড গ্রন্থির ভারসাম্য নষ্ট হয়। তাই এই ধরনের সবজিগুলি স্যালাড হিসেবে না খেয়ে, রান্না করে খেতে পারেন।

আরো পড়ুন সার্জিকাল মাস্ক সংক্রমণ আটকে কতটা সক্ষম জেনে নিন আসল তথ্য

দৈনিক খাদ্য তালিকা কী কী রাখবেন

১) নারকেল তেল

নারকেল তেলের ফ্যাটি অ্যাসিড থাইরয়েড গ্রন্থির কার্যকারিতা বাড়ায় নারকেল তেলকে গরম না করে যদি ব্যবহার করা হয় তাহলে, তা ওজন হ্রাস করতে এবং বিপাকীয় ক্রিয়া বাড়িয়ে তোলে।

২) অ্যাপেল সিডার ভিনিগার

অ্যাপেল সিডার ভিনিগার হরমোন উৎপাদনের ভারসাম্যতা বজায় রাখে এবং বিপাকের উন্নতি ঘটায়। এছাড়াও, এটি বডি ফ্যাট নিয়ন্ত্রণ করে শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থগুলি বের করে দিয়ে পুষ্টি শোষণে সহায়তা করে। রোজ সকালে মধু এবং হালকা গরম জলের সাথে এটি মিশিয়ে খেলে উপকার হবে।

আরো পড়ুন বাড়িতে থেকে মেদ বেড়েছে ? ঝরিয়ে ফেলুন এই ডায়েট প্ল্যানে

৩) আদা

এটি সবচেয়ে সহজ ঘরোয়া উপায়। আদা পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম খনিজে ভরপুর, । থাইরয়েডের সমস্যাগুলির সাথে লড়তে খুবই সহায়ক আদা। আদা দিয়ে চা পান করুন, উপকার হবে।

৪) ভিটামিন বি এবং ভিটামিন ডি

থাইরয়েডের ক্ষেত্রে ভিটামিন বি খুবই কার্যকর । ভিটামিন বি১২ হাইপোথাইরয়েডিজমে আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য খুবই ভালো । , প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় ডিম, মাছ, মাংস, দুধ, বাদাম, প্রভৃতি অবশ্যই রাখবেন। এগুলি পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন বি সরবরাহ করবে।

থাইরয়েডের সমস্যা কে নিয়ন্ত্রন করবেন কি ভাবে ঘরোয়া উপায় জেনে নিন

আরো পড়ুন চায়ের সাথে সিগারেট খাওয়া কতটা ক্ষতিকর জেনে নিন

ভিটামিন ডি-এর অভাবে থাইরয়েডের সমস্যা হয়। সূর্যের আলোতেই শরীর একমাত্র ভিটামিন ডি প্রস্তুত করতে পারে। তাই দিনে অন্তত পক্ষে ১৫ মিনিট অবশ্যই সূর্যের আলোয় থাকবেন। যার ফলে আপনার শরীরে ভালোভাবে ক্যালসিয়াম শোষণ হবে এবং রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও বৃদ্ধি হবে।

আর্থিক উন্নতি তে বাধা কাটানোর সহজ উপায় ঘরোয়া টোটকা

ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ কিছু খাবার – স্যালমন, ম্যাকারেল, দুগ্ধজাতীয় দ্রব্য, কমলালেবুর রস, ডিমের কুসুম, প্রভৃতি। শরীরে ভিটামিন ডি-এর মাত্রা খুবই কম থাকলে, তাহলে চিকিৎসকের পরামর্শ মতো ভিটামিন-ডি সাপ্লিমেন্টও নেবেন।

৫) ডেয়ারি প্রোডাক্ট

দুধ, চিজ, দই, এই ধরনের ডেয়ারি প্রোডাক্টগুলি থাইরয়েডের জন্য খুবই উপকারি। এই সকল খাবারে আয়োডিন এবং খনিজ বিপুল পরিমাণে থাকে, যা থাইরয়েডের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় ।

৬) আয়োডিন সাপ্লিমেন্ট

আয়োডিন সাপ্লিমেন্টও এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বিশেষ করে, নিরামিষাশীদের জন্য আয়োডিন সাপ্লিমেন্ট খুবই প্রয়োজনীয়। এই সাপ্লিমেন্ট দেহে আয়োডিনের ভারসাম্য পুনরুদ্ধার করে এবং থাইরয়েডের ক্ষেত্রেও ভীষণ উপকারি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »