তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, পাঁচ বছরে বেড়েছে সম্পত্তি

দলেরই বিধায়কের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক তৃণমূল নেতা, পাঁচ বছরে বিপুল সম্পত্তির বৃদ্ধির অভিযোগ

বিশেষ প্রতিবেদন Sanjoy Saha – তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ, মাত্র ৩ মিনিট ৫৭ সেকেন্ডের একটি ভিডিও কে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত এবার বাঁকুড়ার জঙ্গলমহল। অভিযোগের তীর রানিবাঁধ এর তৃণমূল বিধায়কের দিকে, আর অভিযোগকারী খোদ তৃণমূলেরই বাঁকুড়া জেলার অন্যতম সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত মিত্র। ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে জেলার রাজনীতিতে।

তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, পাঁচ বছরে বেড়েছে সম্পত্তি

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায় যে কর্মী-সমর্থকদের সামনেই দলের বাঁকুড়া জেলার সাধারণ সম্পাদক জয়ন্ত মিত্র জানাচ্ছেন, “প্রপার মূল্যায়ন হচ্ছে না।

বাকুড়ার তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে কি অভিযোগ উঠেছে

পার্টিটা দালালে ভরে গিয়েছে।” আর এরপরই রানিবাঁধ এর চুল বিধায়ক জ্যোৎস্না মন্ডির কথা উঠে আসে এই ভিডিওটিতে। বিধায়কের নাম নিয়ে জয়ন্ত মিত্র অভিযোগ করেন যে, “মানুষের দরজায় ঘুরে ঘুরে ওকে নির্বাচিত করলাম।

খাতরা আর মানুষের কোন উন্নতি না করে পাঁচ বছর ওর স্বামী আরো ডং ডং করে কাটিয়ে দিল।”

আর্থিক উন্নতি তে বাধা কাটানোর সহজ উপায় ঘরোয়া টোটকা

পাঁচ বছরে বিধায়কের বিরুদ্ধে গাড়ি বাড়ি 40 বিঘা জমি সহ ব্যাপক পরিমাণে ব্যক্তিগত সম্পত্তি বৃদ্ধির চাঞ্চল্যকর অভিযোগ তোলা হয়েছে ওই ভাইরাল ভিডিওটিতে। পাশাপাশি কাজের মানুষদের সরিয়ে ফেক দালালদের ঢুকানোর চেষ্টা করেও যে তিনি ব্যর্থ হয়েছেন এবং দল যে তাকে আর প্রার্থী করবে না সেকথাও ভিডিওটিতে বলতে শোনা যায় তাকে।

তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, পাঁচ বছরে বেড়েছে সম্পত্তি

একই সাথে বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সভাপতি শ্যামল সাঁতরা কে ধরে চেষ্টা চালিয়ে গেলেও যে সে আলোচনা না করে কোন সিদ্ধান্ত নেবেন না,তাও দাবি করা হয় ভাইরাল হওয়া ভিডিওটিতে।

বাড়ির নেগেটিভ শক্তি দূর করবেন কি করে জেনে নিন ঘরোয়া টোটকা

এ ব্যাপারে রানিবাঁধের তৃণমূল বিধায়ক জ্যোৎস্না মান্ডি কে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান যে, তিনি নিজেও ভাইরাল হয়ে যাওয়া ভিডিওটি দেখেছেন।যদিও একে দলের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে উল্লেখ করে এব্যাপারে যাবতীয় সিদ্ধান্ত জেলা নেতৃত্ব নেবেন বলে তিনি মন্তব্য করেছেন।

তৃণমূল বিধায়কের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে, পাঁচ বছরে বেড়েছে সম্পত্তি

আর তার বিপুল সম্পত্তির বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন, এখন অনলাইনের যুগ।যে কেউ চাইলেই তা দেখে নিতে পারেন।আর ঐ ধরনের মন্তব্য তিনি কেন করেছেন জানি না।দল যা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেবে বলেই সাংবাদিকদের এড়িয়ে যান বিতর্কিত তৃণমূল বিধায়ক

Monalisa কালো বিকিনিতে স্বামীর সাথে জলকেলিতে মগ্ন

প্রসঙ্গত গত শুক্রবার বিধায়ক তার নিজের হোয়াটসঅ্যাপ স্ট্যাটাসে লেখেন, ” মানুষ আত্মহত্যা করে অবসাদে।আর রাজনীতি ছাড়ে ধিক্কারে।” যদিও সাম্প্রতিক ঘটনবলীই কী এই স্ট্যাটাসের কারণ সেই উত্তর এখনও পাওয়া যায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »