গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা থানা ভাঙচুর পুলিশকে নিগ্রহের অভিযোগে

আজকের ব্রেকিং নিউজঃ সুন্দরবন কোস্টাল থানা ভাঙচুর পুলিশকে নিগ্রহের অভিযোগে গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা সহ আরো 7 জন

গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা বিশেষ প্রতিবেদনঃ SUSHMITA SINGHA সূত্রের খবর অনুযায়ী সোমবার তাদের আদালতে তোলা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয় পুলিশকে মারধর সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর এই সমস্ত ঘটনাকে কেন্দ্র করে।


রবিবার সকাল বেলা নাকি সুন্দরবন কোস্টাল থানায় ব্যাপক ভাঙচুর চালায় স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। মারধর করা হয় পুলিশ কর্মীদের ও সাথে চলে ইট বৃষ্টিও। এমনকি থানায় রাখা বাইক চুরি করার অভিযোগ উঠেছে।

গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা থানা ভাঙচুর পুলিশকে নিগ্রহের অভিযোগে

গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা – এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূল অঞ্চল সভাপতি রাধেশ্যাম বৈদ্য সহ সাতজনকে গ্রেফতার করল পুলিশ। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে সোমবার তাদের আলিপুর আদালতে তোলা হয়।

তাদের বিরুদ্ধে পুলিশকে মারধর সরকারি সম্পত্তি ভাঙচুর করার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
এলাকা দখল নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে গোসোবা রাধানগর তারানগর গ্রাম পঞ্চায়েতের বিজেপি ও তৃণমূলের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছিল। শনিবার সেখানেই বিজেপি ও তৃণমূল কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

সেইদিন রাতেই আক্রান্ত বিজেপি কর্মীরা গোসাবা সুন্দরবন কোস্টাল থানায় অভিযোগ জানায় । সেই অভিযোগের ভিত্তিতে রাতের মধ্যেই four জন তৃণমূল কর্মীকে আটক করে পুলিশ। অভিযোগ দলীয় কর্মীদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে এবং তাদের মুক্তির দাবিতে রবিবার সকালে থানার সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তৃণমূল কর্মীরা।

Monalisa কালো বিকিনিতে স্বামীর সাথে জলকেলিতে মগ্ন

পুলিশ আধিকারিকরা সেই দাবি না মানলে ধৃতদের থানা থেকে ছিনিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন সেই সময় তৃণমূল কর্মীদের বাধা দেন পুলিশকর্মীরা। এরপরই থানা লক্ষ্য করে শুরু হয় ইট বৃষ্টি।

থানায় ঢুকে তৃণমূল কর্মীরা ভাঙচুর করেন বলেও অভিযোগ ওঠে। মারধর করা হয় বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মীকে পরে এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে তৃণমূলের অঞ্চল সভাপতি রাধেশ্যাম বৈদ্য সহ আরো 7 জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এদিন বর্ধমানের প্রায় 1200 পরিবার কংগ্রেস, সিপিএম-তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে রাজ্য সরকারে যোগদান করেন । আবার তাদের হাতেই দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল।

গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা থানা ভাঙচুর পুলিশকে নিগ্রহের অভিযোগে


পেশায় তিনি আবার প্রখ্যাত ফ্যাশন ডিজাইনার। গতবছর মার্চ মাসে যোগ দেন বিজেপিতে এখন তিনি রাজ্য বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী। এবার সেই অগ্নিমিত্রা পাল সায়ন্তন বসু, দিলীপ ঘোষের পথে হেঁটেই পুলিশের বিরুদ্ধে বেনজির আক্রমন করে বসলেন। তার কথা হলো” পুলিশের মেরুদন্ড ভেঙ্গে গেছে”।

একই সঙ্গে এবার তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বললেন ‘আমাদের ভয় পেয়েছে তৃণমূল’। সোমবার এক দলীয় কর্মসূচি উপলক্ষে বর্ধমান এ যান রাজ্য বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী অগ্নিমিত্রা।সকালে নাকি রাজ্য বাসীর মঙ্গল কামনায় বর্ধমানে সর্বমঙ্গলা মন্দিরে পুজোও দেন তিনি। এদিন বর্ধমানের প্রায় 1200 পরিবার, কংগ্রেস, সি পি এম,


তৃনমূল ছেড়ে বিজেপি রাজ্য সরকারে যোগ দান করেন সকালে। তাদের হাতে সন্মানের সাথে দলীয় পতাকা তুলে দেন বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। এর সাথে ছিলেন বর্ধমান সদর জেলাবিজেপির সভাপতির সন্দীপ নন্দী ও।এই সভা মঞ্চ থেকেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূল ও পুলিশের উপর সরাসরি আক্রমণ করলেন বিজেপি নেত্রী।

গ্রেপ্তার তৃণমূল নেতা থানা ভাঙচুর পুলিশকে নিগ্রহের অভিযোগে

তিনি বলেন এ রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একজন মহিলা তা সত্ত্বেও সরকার মহিলাদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। এই সরকার আমাদের 9 বছর ধরে ঠকিয়েছে আর মাত্র 6 মাসের অপেক্ষা আমরা এবার সরকারে আসছি। সোনার বাংলা গড়বো আমরা বাংলার যদি কোন মহিলার গায়ে হাত তোলে তাহলে সেই হাত ঘুরিয়ে দেব।

অগ্নিমিত্রা অভিযোগ পুলিশ সরকারি চিকিৎসা করা দিদির কথা শুনে চলে তাই ধর্ষণ করে খুনের ঘটনা তেও ময়নাতদন্তের রিপোর্টে ধর্ষণ লেখা হয়না। যদি লেখা হয় তাহলে ডাক্তারদের চাকরিটা চলে যাবে। বেশিরভাগ পুলিশদের শিরদাঁড়া ভেঙে গেছে ওরা এটা বুঝতেই পারছি না যে ছমাস পরে আমাদের সাথেই কাজ করতে হবে। আমাদের ভয় পেয়েছে তৃণমূল। এই নিয়ে কটাক্ষ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কে। বিজেপিতে কেউ যাতে যোগ দিতে না পারেন সে কারণে তৃণমূল এখন মহিলাদের ওপর আক্রমণ করা শুরু করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »