করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে এই ৭টি টেস্ট অবশ্যই করাতে ভুলবেন না

করোনা সংক্রামন থেকে সুস্থ হওয়ার পরে কি কি করবেন 

Bengali Health Tips – করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের দাপটে হাজার হাজার মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে, মৃত্যুও হচ্ছে প্রচুর। তবে দৈনিক প্রচুর মানুষ করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠছেন। তবে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠা মানে এই নয় যে, নিজের মত চলা যাবে । বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ , কোভিড থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরেও স্বাস্থ্যের দিকে কড়া নজর দেওয়া প্রয়োজন। তাই করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে রোগীদের এই সমস্ত টেস্টগুলি করানোর পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিত্সকগন।

কোভিড থেকে সুস্থ হওয়ার পরেও কেন ঘনঘন চেক আপের দরকার হবে?

করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে এই ৭টি টেস্ট অবশ্যই করাতে ভুলবেন না


কোভিড ইনফেকশনের সময় আমাদের ইমিউন সিস্টেম ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করে। কোনো কোনো ক্ষেত্রে দেখা গেছে যে, করোনা দীর্ঘ সময় ধরে শরীরকে প্রভাবিত করে। বিশেষজ্ঞদের মতে, রক্ত এবং ইমিউন সিস্টেমকে ভাইরাস অনেকাংশে প্রভাবিত করে। করোনা ভাইরাস মানুষের ফুসফুস ব্যাপকভাবে ক্ষতি করে। এরজন্যে, টেস্ট ও স্ক্যানের মাধ্যমে জানতে পারবেন যে আপনি কতটা সুস্থ ।

কোভিড থেকে সুস্থ  হয়ে igG অ্যান্টিবডি টেস্ট 

ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়ার পরে, দেহে সহায়ক অ্যান্টিবডি তৈরি হয় যা ভবিষ্যতে সংক্রমণ রোধ করে। অ্যান্টিবডি লেভেল নির্ধারণ কেবলমাত্র ইমিউনিটি-ভিত্তিক সুরক্ষা বুঝতেই সহায়তা করে না, পাশাপাশি এটি প্লাজমা দানের ক্ষেত্রেও অত্যন্ত প্রয়োজনীয় । সাধারণভাবে, শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরী হতে প্রায় এক বা দুই সপ্তাহ সময় লাগে। সুতরাং সম্পূর্ণরূপে সুস্থ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন। যদি প্লাজমা দান করতে চান, তাহলে সুস্থ হওয়ার এক মাসের মধ্যে টেস্ট করুন এবং এটি প্লাজমা ডোনেশনের জন্য আদর্শ সময়।

কোভিড থেকে সুস্থ CBC টেস্ট

কোভিড ভ্যাকসিন কারা নিতে পারবেন এবং কারা নয় জেনে নিন বিস্তারিত

CBC টেস্ট বা কমপ্লিট ব্লাড কাউন্ট টেস্ট এর মাধ্যমে বিভিন্ন ব্লাড সেলস (RBCs, WBCs, Platelets etc) পরিমাপ করা হয়। এই পরীক্ষার মাধ্যমে জানা যায় যে, করোনা সংক্রমণের পরে আপনি কতটা সুস্থ আছেন এবং কোন কোন বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে ।

হার্ট ইমেজ এবং কার্ডিয়াক স্ক্রিনিং

করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পরে এই ৭টি টেস্ট অবশ্যই করাতে ভুলবেন না

এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর শরীর অনেক দুর্বল হয়ে যায়। সংক্রমণের ফলে শরীরে একাধিক প্রদাহ হয়, যার জন্য হৃৎপিণ্ডের পেশী অনেক দুর্বল হয়ে যায়। করোনা থেকে সুস্থ হওয়া অনেক রোগীর হার্টের সমস্যা দেখা দেয়। তাই, রিকোভারি-র পরে হার্ট ইমেজ বা কার্ডিয়াক স্ক্রিনিং অবশ্যই করাবেন।

চেস্ট স্ক্যান টেস্ট

চেস্ট সিটি স্ক্যান-এর মাধ্যমে জানা যায় আপনার রিকোভারি কেমন হচ্ছে। সিটি স্ক্যান-এর দ্বারা লাং ফাংশন রিকোভারি সম্বন্ধে অনেককিছু জানা যায়।

আর্থিক উন্নতি তে বাধা কাটানোর সহজ উপায় ঘরোয়া টোটকা

ভিটামিন ডি টেস্ট

ভিটামিন ডি একটি পুষ্টিকর উপাদান, যা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। করোনা সংক্রমণের সময় ভিটামিন ডি তাড়াতাড়ি সুস্থ হতে সাহায্য করে। তাই ভিটামিন ডি টেস্ট করা অতি প্রয়োজন।

নিউরো-ফাংশন টেস্ট

করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পর,, রোগীদের মধ্যে বেশ কয়েক মাস পর্যন্ত সাইকোলজিক্যাল এবং নিউরোলজিক্যাল সমস্যা দেখা দিচ্ছে। ভ সুস্থ হওয়ার পরে, ব্রেন এবং নিউরোলজিক্যাল ফাংশন টেস্ট অবশ্যই করাবেন যাতে ব্রেন ফগ, উদ্বেগ, অবসন্নতা এবং মাথা ঘোরা, ইত্যাদি লক্ষণগুলি সনাক্ত করে চিকিৎসা আরম্ভ করা যায় ।

কোভিড ভ্যাকসিন কারা নিতে পারবেন এবং কারা নয় জেনে নিন বিস্তারিত

গ্লুকোজ – কোলেস্টেরল টেস্ট

করোনা ভাইরাস নতুন রোগীদেরও ডায়াবেটিস রোগী তৈরি করছে, যাদের মধ্যে সংক্রমণের আগে ডায়াবেটিস ছিল না। এই জন্য , করোনা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার পরে গ্লুকোজ টেস্ট করান, যাতে রক্তে গ্লুকোজের লেভেল জানতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x
Translate »